রূপগঞ্জ, নারায়নগঞ্জ ০৯:৩১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘টাইমড আউট’- ৫ সেকেন্ডের প্রমাণ দিলেন ম্যাথুস

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত : ০১:১৯:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩
  • ১৫৫ বার দেখা হয়েছে

জয়-পরাজয় ছাপিয়ে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ নিয়ে তুমুল বিতর্ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের টাইমড আউট নিয়ে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৪৬ বছরের ইতিহাসে প্রথম আউট নিয়ে ম্যাচ শেষে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছিল সাকিব আল হাসান ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের দিকে। সেখানে সাকিব আত্মপক্ষ সমর্থন করেছেন, তবে ম্যাথুস ক্ষুব্ধ হয়ে বলেছেন তিনি এমন কিছু মেনে নেবেন না। তাদের কাছে এই সিদ্ধান্তের ভুল নিয়ে ভিডিও প্রমাণ আছে। এ ঘটনায় আনুষ্ঠানিকভাবে বিবৃতিও দেবে শ্রীলঙ্কা।

শ্রীলঙ্কার ইনিংসের পর চতুর্থ আম্পায়ার আদ্রিয়ান হোল্ডস্টক জানান, ম্যাথুসের হেলমেটের সমস্যা সামনে আসার আগেই দুই মিনিট পার হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ম্যাথুসের দাবি, পাঁচ সেকেন্ড সময় বাকি ছিল।

এ–সংক্রান্ত ভিডিও প্রমাণও আছে বলে দাবি করেন তিনি, ‘হেলমেট ভেঙে যাওয়ার পরও আমার পাঁচ সেকেন্ড সময় বাকি ছিল। আমি হেলমেট দেখিয়েছিও। কিন্তু আম্পায়ার বললেন, প্রতিপক্ষ আউটের আবেদন করেছে। এই সিদ্ধান্তের কাণ্ডজ্ঞান নিয়ে আমার প্রশ্ন আছে। তখন পর্যন্ত আমার দুই মিনিট সময়ই তো পার হয়নি। আমার কাছে ভিডিও প্রমাণ আছে।’

সংবাদ সম্মেলনের কিছুক্ষণ পর নিজের দাবির পক্ষে এক্সে (সাবেক টুইটার) দুটি স্থিরচিত্র প্রকাশ করেছেন ম্যাথুস। তিনি লিখেছেন, ‘চতুর্থ আম্পায়ার ভুল বলেছেন। ভিডিও প্রমাণ বলছে, হেলমেট খুলে ফেলার পরও ৫ সেকেন্ড বাকি ছিল। চতুর্থ আম্পায়ার কি অনুগ্রহ করে সংশোধন করবেন? আমি বলতে চাচ্ছি, নিরাপত্তা সবার আগে, আমি তো হেলমেট ছাড়া একজন বোলারের মুখোমুখি হতে পারি না।’

এভাবেই আইসিসির সামনে নিজের নির্দোষ হওয়ার প্রমাণ তুলে ধরেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। কিন্তু এই বিষয়ে আইসিসি কী সিদ্ধান্ত নেয় সেটাই দেখার।

ঘটনাটি ঘটে ইনিংসের ২৫তম ওভারে। বল করতে আসেন টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। প্রথম বলে চার খাওয়ার পরের বলে লঙ্কান ব্যাটার সাদিরা সামারাবিক্রমা ক্যাচ আউট হন। সে সময় স্থানীয় ঘড়িতে সময় দেখাচ্ছিল ৩টা ৪৯ মিনিট। এরপর ব্যাট করতে নামেন ম্যাথুস। যে হেলমেট নিয়ে খেলতে নেমেছিলেন, সেটিতে স্বস্তি বোধ করছিলেন না। পরে নতুন আরেকটি হেলমেট নিয়ে আসা হয়। সেটিতেও খানিকটা সমস্যা ছিল। তাই আবারও হেলমেট পরিবর্তন করতে চান ম্যাথিউস। কিন্তু ততক্ষণে মিনেট তিনিকের বেশি সময় পার হয়ে যায়। টাইম আউটের আবেদন করেন সাকিব। আবেদনের প্রেক্ষিতে ৩টা ৫৫ মিনিটে আউট দেন অনফিল্ড আম্পায়ার মারইয়াস ইরাসমাস।

ম্যাথুসের দাবি, হেলমেটের স্ট্র্যাপ ছিরে যাওয়ার ব্যাপারটা ছিল যান্ত্রিক থ্রুটি, যেটা মাঠে যে কোনো সময় ঘটতে পারে। কিন্তু সেটা আমলে না নিয়ে কাণ্ডজ্ঞান প্রয়োগ না করার জন্য আম্পায়ারদের সরাসরি সমালোচনা করেছেন। তার দাবি, আম্পায়াররা ভুল করেছেন এবং ম্যাচ শেষে সেটা শ্রীলংকা দলের কাছে স্বীকারও করেছেন।

ট্যাগ :
জনপ্রিয় সংবাদ

‘টাইমড আউট’- ৫ সেকেন্ডের প্রমাণ দিলেন ম্যাথুস

প্রকাশিত : ০১:১৯:০৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩

জয়-পরাজয় ছাপিয়ে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ নিয়ে তুমুল বিতর্ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের টাইমড আউট নিয়ে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ১৪৬ বছরের ইতিহাসে প্রথম আউট নিয়ে ম্যাচ শেষে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছিল সাকিব আল হাসান ও অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের দিকে। সেখানে সাকিব আত্মপক্ষ সমর্থন করেছেন, তবে ম্যাথুস ক্ষুব্ধ হয়ে বলেছেন তিনি এমন কিছু মেনে নেবেন না। তাদের কাছে এই সিদ্ধান্তের ভুল নিয়ে ভিডিও প্রমাণ আছে। এ ঘটনায় আনুষ্ঠানিকভাবে বিবৃতিও দেবে শ্রীলঙ্কা।

শ্রীলঙ্কার ইনিংসের পর চতুর্থ আম্পায়ার আদ্রিয়ান হোল্ডস্টক জানান, ম্যাথুসের হেলমেটের সমস্যা সামনে আসার আগেই দুই মিনিট পার হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ম্যাথুসের দাবি, পাঁচ সেকেন্ড সময় বাকি ছিল।

এ–সংক্রান্ত ভিডিও প্রমাণও আছে বলে দাবি করেন তিনি, ‘হেলমেট ভেঙে যাওয়ার পরও আমার পাঁচ সেকেন্ড সময় বাকি ছিল। আমি হেলমেট দেখিয়েছিও। কিন্তু আম্পায়ার বললেন, প্রতিপক্ষ আউটের আবেদন করেছে। এই সিদ্ধান্তের কাণ্ডজ্ঞান নিয়ে আমার প্রশ্ন আছে। তখন পর্যন্ত আমার দুই মিনিট সময়ই তো পার হয়নি। আমার কাছে ভিডিও প্রমাণ আছে।’

সংবাদ সম্মেলনের কিছুক্ষণ পর নিজের দাবির পক্ষে এক্সে (সাবেক টুইটার) দুটি স্থিরচিত্র প্রকাশ করেছেন ম্যাথুস। তিনি লিখেছেন, ‘চতুর্থ আম্পায়ার ভুল বলেছেন। ভিডিও প্রমাণ বলছে, হেলমেট খুলে ফেলার পরও ৫ সেকেন্ড বাকি ছিল। চতুর্থ আম্পায়ার কি অনুগ্রহ করে সংশোধন করবেন? আমি বলতে চাচ্ছি, নিরাপত্তা সবার আগে, আমি তো হেলমেট ছাড়া একজন বোলারের মুখোমুখি হতে পারি না।’

এভাবেই আইসিসির সামনে নিজের নির্দোষ হওয়ার প্রমাণ তুলে ধরেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। কিন্তু এই বিষয়ে আইসিসি কী সিদ্ধান্ত নেয় সেটাই দেখার।

ঘটনাটি ঘটে ইনিংসের ২৫তম ওভারে। বল করতে আসেন টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। প্রথম বলে চার খাওয়ার পরের বলে লঙ্কান ব্যাটার সাদিরা সামারাবিক্রমা ক্যাচ আউট হন। সে সময় স্থানীয় ঘড়িতে সময় দেখাচ্ছিল ৩টা ৪৯ মিনিট। এরপর ব্যাট করতে নামেন ম্যাথুস। যে হেলমেট নিয়ে খেলতে নেমেছিলেন, সেটিতে স্বস্তি বোধ করছিলেন না। পরে নতুন আরেকটি হেলমেট নিয়ে আসা হয়। সেটিতেও খানিকটা সমস্যা ছিল। তাই আবারও হেলমেট পরিবর্তন করতে চান ম্যাথিউস। কিন্তু ততক্ষণে মিনেট তিনিকের বেশি সময় পার হয়ে যায়। টাইম আউটের আবেদন করেন সাকিব। আবেদনের প্রেক্ষিতে ৩টা ৫৫ মিনিটে আউট দেন অনফিল্ড আম্পায়ার মারইয়াস ইরাসমাস।

ম্যাথুসের দাবি, হেলমেটের স্ট্র্যাপ ছিরে যাওয়ার ব্যাপারটা ছিল যান্ত্রিক থ্রুটি, যেটা মাঠে যে কোনো সময় ঘটতে পারে। কিন্তু সেটা আমলে না নিয়ে কাণ্ডজ্ঞান প্রয়োগ না করার জন্য আম্পায়ারদের সরাসরি সমালোচনা করেছেন। তার দাবি, আম্পায়াররা ভুল করেছেন এবং ম্যাচ শেষে সেটা শ্রীলংকা দলের কাছে স্বীকারও করেছেন।