রূপগঞ্জ, নারায়নগঞ্জ ১০:১৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৯ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কোনাবাড়ীতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ, দুই বাসে আগুন

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত : ০১:১৭:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩
  • ১৬৯ বার দেখা হয়েছে

বেতন বাড়ানোর দাবিতে গাজীপুরের কোনাবাড়ীতে কয়েকটি কারখানার শ্রমিকরা আন্দোলনে নেমেছেন। মঙ্গলবার সকালে তারা ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের বাস স্ট্যান্ড এলাকায় এবং কোনাবাড়ী কাশিমপুর আঞ্চলিক সড়ক অবরোধ করেন। এছাড়া দুইটি বাসে আগুন দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, সকাল ৮টার দিকে শ্রমিকরা কর্মস্থল ছেড়ে সড়কে অবস্থান করে। এসময় তারা বেতন বৃদ্ধির দাবিতে স্লোগান দিতে থাকে। খবর পেয়ে গাজীপুর শিল্প পুলিশ, থানা পুলিশ তাদের ওপর লাঠিচার্জ করে। এসময় পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষ হয়। এতে কয়েকজন শ্রমিক আহত হন। পরে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা বেশ কয়েকটি বাস ভাঙচুর এবং দুইটি বাসে আগুন দেয়।

শ্রমিকরা জানান, তাদের বেতন নূন্যতম ২৩ হাজার টাকা করার দাবিতে ২৩ অক্টোবর থেকে তারা আন্দোলন করে আসছে। সরকার এবং মালিকপক্ষ তাদের আন্দোলনের কোনো গুরুত্ব না দিয়ে গ্রেপ্তার, হয়রানি এবং নির্যাতন করছেন। বেতন বৃদ্ধির নামে প্রহসন করছেন মালিকপক্ষ।

কাশেমপুর ডিবিএল ফায়ার সার্ভিসের ওয়্যার ইন্সপেক্টর মিরাজুল ইসলাম বলেন, দুইটি বাসে আগুনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনা হয়েছে। তবে দুটি বাস পুড়ে ছাই হয়েছে।

কোনাবাড়ী মেট্রো থানার ওসি কে এম আশরাফ উদ্দিন জানান, শ্রমিকরা সকাল সাড়ে দশটার দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের কোনাবাড়ী সাইনবোর্ড নামক এলাকায় আজমেরি পরিবহনের দুটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণ করেছে। শ্রমিকরা মহাসড়ক অবরোধের চেষ্টা করলে তাদের লাঠিচার্জ করে সরিয়ে দেওয়া হয়।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক ইয়াসিন আরাফাত হোসাইন বলেন, তৃতীয় পক্ষের কেউ শ্রমিকদের উস্কে দিয়ে মহাসড়কে অবরোধ, ভাঙচুরের ঘটনা ঘটাচ্ছে। এখন যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। আমাদের সদস্যরা টহল দিচ্ছে।

ট্যাগ :
জনপ্রিয় সংবাদ

কোনাবাড়ীতে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ, দুই বাসে আগুন

প্রকাশিত : ০১:১৭:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩

বেতন বাড়ানোর দাবিতে গাজীপুরের কোনাবাড়ীতে কয়েকটি কারখানার শ্রমিকরা আন্দোলনে নেমেছেন। মঙ্গলবার সকালে তারা ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের বাস স্ট্যান্ড এলাকায় এবং কোনাবাড়ী কাশিমপুর আঞ্চলিক সড়ক অবরোধ করেন। এছাড়া দুইটি বাসে আগুন দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, সকাল ৮টার দিকে শ্রমিকরা কর্মস্থল ছেড়ে সড়কে অবস্থান করে। এসময় তারা বেতন বৃদ্ধির দাবিতে স্লোগান দিতে থাকে। খবর পেয়ে গাজীপুর শিল্প পুলিশ, থানা পুলিশ তাদের ওপর লাঠিচার্জ করে। এসময় পুলিশ-শ্রমিক সংঘর্ষ হয়। এতে কয়েকজন শ্রমিক আহত হন। পরে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা বেশ কয়েকটি বাস ভাঙচুর এবং দুইটি বাসে আগুন দেয়।

শ্রমিকরা জানান, তাদের বেতন নূন্যতম ২৩ হাজার টাকা করার দাবিতে ২৩ অক্টোবর থেকে তারা আন্দোলন করে আসছে। সরকার এবং মালিকপক্ষ তাদের আন্দোলনের কোনো গুরুত্ব না দিয়ে গ্রেপ্তার, হয়রানি এবং নির্যাতন করছেন। বেতন বৃদ্ধির নামে প্রহসন করছেন মালিকপক্ষ।

কাশেমপুর ডিবিএল ফায়ার সার্ভিসের ওয়্যার ইন্সপেক্টর মিরাজুল ইসলাম বলেন, দুইটি বাসে আগুনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনা হয়েছে। তবে দুটি বাস পুড়ে ছাই হয়েছে।

কোনাবাড়ী মেট্রো থানার ওসি কে এম আশরাফ উদ্দিন জানান, শ্রমিকরা সকাল সাড়ে দশটার দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের কোনাবাড়ী সাইনবোর্ড নামক এলাকায় আজমেরি পরিবহনের দুটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণ করেছে। শ্রমিকরা মহাসড়ক অবরোধের চেষ্টা করলে তাদের লাঠিচার্জ করে সরিয়ে দেওয়া হয়।

র‌্যাব-১ এর অধিনায়ক ইয়াসিন আরাফাত হোসাইন বলেন, তৃতীয় পক্ষের কেউ শ্রমিকদের উস্কে দিয়ে মহাসড়কে অবরোধ, ভাঙচুরের ঘটনা ঘটাচ্ছে। এখন যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। আমাদের সদস্যরা টহল দিচ্ছে।